এবার আধার কার্ডের নয়া ফরমান জারি, না মানলে, প্রকল্পের টাকাও পাবেন না, আধার কার্ড ও বাতিল হবে।

আধার কার্ড নিয়ে কেন্দ্রের নয়া নির্দেশ, ফের কোন সমস্যার মুখে দেশবাসী, দেখুন

আধার কার্ড ও প‍্যান লিংক (Aadhaar PAN Link) করার জন্য ১ হাজার টাকা করে জরিমানা নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। আর তার সঙ্গে একশ্রেণীর দালালরা সাইবার ক্যাফেতে বসে অনলাইনে কাজটি করে দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের কাছ থেকে আরও ১০০, ২০০, ৪০০ টাকা পর্যন্ত বেশি নিচ্ছে। ফলে একজন মানুষকে আধার কার্ডের সঙ্গে প্যান কার্ড লিঙ্ক করার জন্য ১২০০, ১৪০০ টাকা পর্যন্ত খরচ করতে হচ্ছে। আর এবার সেই কেন্দ্রীয় সরকার আবার আরেকটি নয়া নিয়ম ঘোষণা করেছে। ১০ বছর পর পর আধার কার্ড আপডেট করতে হবে।

Advertisement

এই সমস্ত প্রকল্পে আধার কার্ড লিঙ্ক না করলে সরকারি পরিষেবা পাবেন না, নতুন তালিকা প্রকাশ করলো সরকার।

আর তা না হলে কেন্দ্রের নির্দেশ পুরনো আধার ডকুমেন্ট আপডেট না করা হলে বাতিল বলে গণ্য করা হবে। ফলে অধিকাংশ মানুষকেই এখন আধার আপডেট করতে হবে। কারণ বেশিরভাগ আধার কার্ডই ১০ বছরের মেয়াদ পার হয়ে গিয়েছে। আধার প্যান লিংক নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে ১০০০ টাকার জরিমানা মকুবের কথা বলা হলেও কেন্দ্র সেই কথা শোনেনি। ফলে আধার আপডেট নিয়ে যদি ঠিক সময়ের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন না করা হয়, তাহলে ফের কেন্দ্রের তরফে কিছু না কিছু ঘোষণা আবার হতে পারে।

Advertisement

যদি তাই হয়, তাহলে খুব সমস্যায় পড়বেন সাধারণ মানুষ। ফলে এক্ষুনি আধার আপডেট সেন্টারে গিয়ে কাজটি সেরে নিতে পারেন। তথ্য মিত্র কেন্দ্রতেও এই কাজ করা যাবে। তবে কোনো অপরিচিত সাইবার ক্যাফে বা অন্য কাউকে দিয়ে আধার আপডেটের কাজ করাবেন না। এছাড়াও নিজেই বাড়িতে বসেও এই কাজটি খুব সহজেই করে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আধারের সঙ্গে মোবাইল ফোনের নম্বরের লিংক থাকতে হবে।

আর তা না হলে ফের পকেটের পয়সা খরচ করে এই কাজও করতে হবে। একবার দেখে নেওয়া যাক, বাড়িতে বসে কিভাবে আধার কার্ড আপডেট করা যেতে পারে:
প্রথমেই https://uidai.gov.in এই ওয়েবসাইটে গিয়ে My Aadhaar অপশনে ক্লিক করে Update Demographics Data & Check Status অপশনে ক্লিক করতে হবে।

এরপরের স্ক্রিনে Login করে আধার নম্বর, ক্যাপচা নম্বর দেওয়ার পর Send OTP ক্লিক করতে হবে। এরপর সেই ওটিপি Enter OTP জায়গায় টাইপ করে লগইন করতে হবে। এরপরের স্ক্রিনে Next বাটনে ক্লিক করার পর যে পেজটি আসবে, সেখানে I
Verified that the above details are correct অপশনে প্রথমে ক্লিক করুন।
তারপর Next অপশনে ক্লিক করুন।

Advertisement

এরপরেই POI এবং POA ডকুমেন্ট আপলোড করার নির্দেশ আসবে। POI মানে Proof of Identity সেখানে ফটো আইডি আপলোড করতে হবে। আর POA মানে Proof of Address এখানে ঠিকানার প্রমাণপত্র আপলোড করতে হবে। POI অপশনে ক্লিক করে স্ক্যান বা ফটো করে রাখা সচিত্র আইডেন্টিটি আপলোড করুন।

স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের নিয়ম আরও সহজ হল, স্বাস্থ্যসাথী ও লক্ষ্মীর ভান্ডার এবার সবাই পাবে।

View Details&Upload Documents অপশনে ক্লিক করে Continue to Upload option এ ক্লিক করুন।এবার Okay তে ক্লিক করার পর POI আপলোড এ ক্লিক করে একইভাবে ডকুমেন্ট আপলোড করুন। তারপর Okay বাটনে ক্লিক করুন। এরপর I hereby give my consent এ সিলেক্ট করে Next অপশনে ক্লিক করুন।

Okay তে ক্লিক করে Submit করুন।
এরপরেই আধার ডকুমেন্ট আপডেট হয়ে গেলে তার মেসেজ আপনার নির্দিষ্ট মোবাইল নম্বরে চলে আসবে।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment