দুয়ারে সরকার প্রকল্পে যুক্ত হলো আরও 4 টি প্রকল্প, কি কি সুবিধা পাবেন, জেনে নিন।

দুয়ারে সরকার ক‍্যাম্পে এবার নতুন ৪ টি প্রকল্প।

সমস্যায় পড়েছেন? আর তা সমাধানের জন্য এখন আর যেতে হয়না সরকারের কোনো নির্দিষ্ট অফিসে। দুয়ারে সরকার প্রকল্পের (Duare Sarkar Camp) মাধ্যমে অনেক কাজ, নিজের বাড়ির কাছেই হয়ে যায়। আর আগে সরকারী অফিসে যাওয়ার কথা শুনলেই চিন্তা শুরু হয়ে যেত সাধারণ মানুষের। কারণ সরকারি অফিসে যাওয়ার মানেই তো লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা, ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকার পরেও কোনো অফিসার বা কর্মী সেই কাজের সমাধান যে করে দেবেন তারও নিশ্চয়তা নেই।

Advertisement

আবার হয়তো পরের আরেকটি তারিখ যেতে হবে। সেদিন ফের যাওয়া আবার নিয়ম করে, সাধারণ মানুষের এই কষ্টের কথা চিন্তা করেই একেবারে দুর্দান্ত পদক্ষেপ নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মানুষের দোরগোড়ায় সরকারি পরিষেবাকে পৌঁছে দিয়েছেন তিনি। বাংলার মানুষকে আর কাজের জন্য সরকারি অফিসে আসতে হবে না। সরকারি অফিস পৌঁছে যাচ্ছে বাংলার মানুষের দরজায়। দুয়ারে সরকার (Duare Sarkar) কর্মসূচির মাধ্যমে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisement

ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকবার দুয়ারে সরকার ক্যাম্প রাজ্য জুড়ে সম্পন্ন হয়েছে। এবার ফের পঞ্চায়েত ভোটের (Panchayat Election) আগে ১ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত দুয়ারে সরকার ক্যাম্প চলবে। তারপর ১০ এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত সেই ক্যাম্পগুলি থেকে পাওয়া আবেদন কার্যকর করা হবে। ফলে দুয়ারে সরকার শিবিরের পুরো প্রক্রিয়া চলবে ১ থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত। দুয়ারে সরকার শিবির থেকে সমস্ত সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাবে।

কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে?

কন্যাশ্রী, শিক্ষাশ্রী, খাদ্য সাথী, স্বাস্থ্যসাথী, লক্ষীর ভাণ্ডার, রূপশ্রী, জাতিগত শংসাপত্র, সরকারি বিভিন্ন স্কলারশিপ, স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড সহ বহু প্রকল্পের পরিষেবা মিলবে। এবার দুয়ারে সরকার শিবির থেকে নতুন ৪টি প্রকল্পের পরিষেবা সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে। সেগুলি হল, মেধাশ্রী স্কলারশিপ প্রকল্প, ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড, প্রতিবন্ধী সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন এবং স্পিংলার সেচের জন্য সরকারি আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদন। এবার এই নতুন ৪টি প্রকল্পের বিষয়ে একটু বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

Link or Register Mobile Number with Post Office Account (পোস্ট অফিসের একাউন্ট)

নতুন কি কি সুবিধা মিলবে?

১. মেধাশ্রী স্কলারশিপ প্রকল্প (Medhasree Scholarship)
এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্য সরকার ওবিসি পড়ুয়াদের বছরে ৮০০ টাকা করে ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মাস কয়েক আগেই এই মেধাত্রী প্রকল্প চালু কথা ঘোষণা করেন। মেধাশ্রী প্রকল্পের আবেদন অনলাইনেও করা যাচ্ছে। আর কেউ চাইলে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে গিয়েও আবেদন করতে পারবেন।

Advertisement

আরও পড়ুন, রাজ্যবাসীদের সুখবর, রেশন পরিষেবার সাথে চালু হচ্ছে ব্যাংকিং সিস্টেম কি কি সুবিধা পাবেন জেনে নিন

২. ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড (Vobissot Credit Card)
এই প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকার বাজেটে ৩৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড প্রকল্প রাজ্যের ক্ষুদ্র এবং মাঝারি শিল্পের জন্যই শুরু করা হয়েছে। যে সমস্ত মানুষেরা ছোট, ক্ষুদ্র এবং মাঝারি শিল্প তৈরি করার জন্য উদ্যোগ নিচ্ছেন, সেই রকম ২ লক্ষ যুবক-যুবতীকে আর্থিক সহায়তা বাবদ ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বল্প সুদে লোন দেওয়া হবে। আর এই ধরনের শিল্প ইউনিট তৈরি হলে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ তৈরি হবে। এই ঋণের গ্যারান্টার থাকছে রাজ্য সরকার। সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ভর্তুকিও দেওয়া হবে।

সকল পোস্ট অফিস গ্রাহকদের আগামী মাসের আগে এই কাজ করতে হবে, নইলে টাকা তুলতে সমস্যা হতে পারে।

৩. প্রতিবন্ধী শংসাপত্রের জন্য আবেদন (PH Certificate)
এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের যে কোনো প্রতিবন্ধী ব্যক্তি সার্টিফিকেটের জন্য দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে গিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

৪. স্পিংলার সেচের জন্য
সরকারি আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদন (Spinkler Irrigation Project)– এই প্রকল্পের জন্য প্রায় ১ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। এর মধ্যে ৮৫ হাজার কৃষক এই সুবিধা পাওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment